নিউজ ডেস্ক

বৈদেশিক সাংস্কৃতিক আগ্রাসন থেকে রক্ষা করার জন্য জাসাসের প্রতিষ্ঠা: মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেছেন, বৈদেশিক সাংস্কৃতিক আগ্রাসন থেকে রক্ষা করার জন্য জাসাসের প্রতিষ্ঠা। সামাজিক এসব অবক্ষয় ও বিশৃঙ্খলার মূলে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রভাব ফেলছে ভিনদেশীয় সাংস্কৃতিক আগ্রাসন। কোনো জাতির পরিচয় তুলে ধরার জন্য সংস্কৃতি একটা বিরাট পন্থা হিসেবে কাজ করে। এটি একটি রাষ্ট্র বা জাতির মেরুদন্ড। সংস্কৃতি এমন এক শক্তিশালী নিয়ামক, যা কোনো জাতি বা রাষ্ট্রের উন্নতির প্রণোদনা হিসেবে কাজ করে। একটি দেশের একক সংস্কৃতি যখন অন্যান্য দেশের সংস্কৃতিকে ধ্বংস করে নিজের আধিপত্য বিস্তার করতে চায় এবং অন্য সংস্কৃতির স্থান যখন সেই সংস্কৃতি নিয়ে নেয় তখন তাকে সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বলে। আমাদের রয়েছে নিজস্ব ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি। সেই কথা বুঝতে ফেরেছিলেন বলেই শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি ছিলেন একজন সুরুচিসম্পন্ন সংস্কৃতিবান মানুষ। বই পড়া ও গান শোনা ছিল তার প্রিয় ও পছন্দের কাজ। তিনি একজন চৌকস ক্রীড়াবিদ ছিলেন। দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ও সংস্কৃতিবান মানুষ হিসেবে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান জাতীয় জীবনে সংস্কৃতি চর্চার গুরুত্ব উপলব্ধি করেন এবং এর উন্নয়ন বিকাশে নানাবিধ উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করেন। আজ মানুষের আর্তনাদ, দুর্নীতি আর দুঃশাসনের কারণে অবৈধ সরকার দেশটাকে দুর্নীতির ডিপো বানিয়েছে, তাই আসুন জনগণের দল হিসেবে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে জনগণের ভোটাধিকার, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হই।

তিনি ৩ সেপ্টেম্বর (রবিবার) বিকালে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাসাস’র উদ্যোগে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির ৪৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির ৭ দিনব্যাপী কর্মসূচির শেষ দিনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

উত্তর জেলা জাসাসের সভাপতি কাজী সাইফুল ইসলাম টুটুল’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আশ্রাফ উল্লাহ’র পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এম এ হালিম, বিশেষ অতিথি যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক ইউনুস চৌধুরী, আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন, নুরুল আমিন, নুর মোহাম্মদ, ইজ্ঞিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, জাসাসের কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন, জাসাস চট্টগ্রাম মহানগর সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ শিপন।

বক্তব্য রাখেন সন্দ্বীপ উপজেলা আহবায়ক এডভোকেট আবু তাহের, ফটিকছড়ি বিএনপির আহবায়ক কর্ণেল আজিম উল্লাহ বাহার, রাউজান বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক মো. জসিম উদ্দিন চৌধুরী, মিরসরাই বিএনপির আহবায়ক শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি হাসান মুহাম্মদ জসিম, সাধারণ সম্পাদক এস এম মুরাদ চৌধুরী, রাংগুনীয়া উপজেলা সদস্যসচিব আবু আহমদ হাসানাত, উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য আবদুল আউয়াল চৌধুরী, সন্দ্বীপ উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলমগীর হোসেন ঠাকুর, সন্দ্বীপ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক গাজী মো: হানিফ, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি জাহিদুল আফসার জুয়েল ও উত্তর জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক লায়লা ইয়াসমিন, উত্তর জেলা জাসাসের সহসভাপতি মীর্জা মেশকাত হোসেন চৌধুরী, জসিম উদ্দিন তালুকদার, খোরশেদ আলম, ইঞ্জিনিয়ার আরিফ, আমির রায়হান, সুমন বাপ্পি, কুলসুমা বেগম, খেলনাসহ বিভিন্ন উপজেলা ও পৌরসভা জাসাস নেতৃবৃন্দ।

মন্তব্য করুন