নিউজ ডেস্ক

আদিলুর রহমান ও নাসির উদ্দিনের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সাইবার নিরাপত্তা আইন বাতিল ও অধিকার কর্মকর্তা মানবাধিকার কর্মী আদিলুর রহমান ও নাসির উদ্দিনের মুক্তি দাবী করেছেন পেশাজীবী পরিষদের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিতে তারা বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাইবার আইন মুদ্রার এ পিট ও পিট। আইন একই ও শুধু নামের পরিবর্তন। দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করার লক্ষ্যে এ আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। শুধু তাই নয় এই আইনের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে কেউ সরকারের সমালোচনা ও বিরোধিতা করতে না পারে। দেশের মানুষেরা বাক স্বাধীনতা ও চিন্তার স্বাধীনতা হরণ করা। একই সঙ্গে বিবৃতিদাতাগণ বলেছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন অধিকারের কর্ণধার আদিলুর রহমান ও নাসির উদ্দিন। শুধু তাই নয় অধিকারের নিবন্ধন বাতিল রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। যাতে করে সংস্থাটির কার্যক্রম পরিচালনা করতে না পারে। এর ফলে অধিকারের কর্মকর্তারা আদিলুর ও নাসির উদ্দিনের মুক্তির ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হবে। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উভয়ের মুক্তি দাবি জানিয়ে বলেছেন, এ ধরণের ঘটনা মানবাধিকার আন্দোলনের কাছে বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়ে।
বিবৃতিদাতারা হলেন, সম্মিলিত পেশাজীবি পরিষদ আহ্বায়ক সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচি, সাধারণ সম্পাদক ডা. খুরশীদ জামিল চৌধুরী, জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক নছরুল কাদির, চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. নাজিম উদ্দিন, ড্যাব চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ শাখার সভাপতি ডা. জসিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. শাহনেওয়াজ, ড্যাব চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি ডা. তমিজ উদ্দিন মানিক, ড্যাব চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সহ-সভাপতি ডা. আব্বাস, শিল্পপতি সারোয়ার আলমগীর, সাংবাদিক ইসকান্দর আলী চৌধুরী, চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. এনামুল হক, এড. মফিজুল হক ভূঁইয়া, ইউনাইটেড ল ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এড. জহুরুল আলম, এড. এস.ইউ.এম নুরুল ইসলাম, এড. আলাউদ্দিন, এড. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, এড. জাতীয়তাবাদী আইনজীবি ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এড. হাসান আলী, এড. আবদুস সাত্তার সরোয়ার, এড. মকবুল কাদের চৌধুরী, রোটারিয়ান জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সমাজসেবক জসিম ফিরোজ, সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম শিল্পী, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সালেহ নোমান, ডা. মো. ইছা চৌধুরী, ডা. সরোয়ার আলম, ডা. মোনায়েম ফরহাদ, ডা. সাকিবুর রশিদ, ডা. ইফতেখার লিটন, ইঞ্জি: আতিকুজ্জামান বিল্লা, ইঞ্জি: মো.ওসমান, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. সাফা, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা একরামুল করিম, ডা. আবু জাফর, ডা. আবদুল মান্নান, বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাহাবউদ্দিন, ডা. কামরুন্নাহার দস্তগীর, ডা. আশরাফ কবির ভূঁইয়া, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, সালাহউদ্দিন আলী, মাহবুব রানা, ডা. শাহনা বেগম, ডা. আবদুল মোতালিব, অধ্যাপক ডা. আব্বাস উদ্দিন, ডা. জিয়াউদ্দিন, এড. জহিরুল আলম, ডা. ফয়জুর রহমান, ডা. রাজীব চৌধুরী, ডা. মো. ইয়াছিন, প্রকৌশলী আমিনুর রহমান সুমন, এম. মনজুর উদ্দিন চৌধুরী, প্রকৌশলী জিল্লুর রহমান, অধ্যাপক জাফর উল্লাহ তালুকদার, ডা. রাসেল ফরিদ, এড. আজিজুল হক, ডা. কাজী মাহবুব আলম, ডা. সৈয়দ মাহমুদুল ইসলাম, ডা. ফেরদৌস আরা সালমা, ডা. হোসনে আরা বেগম, ডা. রিফাত আক্তার, এড. বিলকিস আরা মিতু, এড. রুনা কাশেম, ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ হাসান, ডা. ময়নাল হোসেন, এড. আশরাফী বিনতে মোতালেব, এড. আয়শা আক্তার সনজি, ডা. হাসান আল মান্না, ডা. সাগর আজাদ, ডা. আহমদ উল্লাহ চৌধুরী, ডা. নুরুল আবছার খান, ডা. মিনহাজুল আলম, ডা. মো. মঈনউদ্দিন, ডা. সাকিবুর রশিদ, এড. তৌহিদুল ইসলাম, সাংবাদিক এফ.এ.এফ রুমি, নারীনেত্রী আরজু শাহাবউদ্দিন, কৃষিবিদ প্রফেসর ড. রোকনুজ্জামান, অধ্যাপক মো. আলামিন, অধ্যাপক মো. শাহাদাত হোসেন, কৃষিবিদ প্রফেসর ড. শাহনাজ সুলতানা, অধ্যাপ মো. শফিকুল ইসলাম, কৃষিবিদ প্রফেসর ডা. লুৎফর রহমান, ডা. সুলতান মাহমুদ হাসান, এড. অধ্যাপক কাজী সাইফুদ্দিন, অধ্যাপক আবু নাছের, অধ্যাপক জাকারিয়া, অধ্যাপক মো. আবদুল মাবুদ, অধ্যাপক জহুরুল আলম, ডা. ইমরান হোসেন, ডা. মিনহাজুল আলম ও গোলাম ফারুক।

মন্তব্য করুন