নিউজ ডেস্ক

গার্মেন্টসকর্মী ধর্ষণের ঘটনায় ভূয়া আইনজীবী আটক

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: নগরীর সিইপিজেডস্থ (ফ্রী পোর্ট) এলাকা থেকে সিএনজি যোগে কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন রোড এশিয়ান এস আর আবাসিক হোটেলে ঘটনার দিন থেকে একাধিকবার ভিকটিম গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিবাদি মোঃ কামরুল হাসান হৃদয়ের সাথে বিগত ৬ মাস পূর্বে অনলাইনে টিকটকের মাধ্যমে পরিচয় হয়। বিবাদি নিজেকে আইনজীবী ও সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বাদির সাথে তার টিকটক আইডিতে কথাবার্তা ও মোবাইল নাম্বার আদান প্রদান করে এবং তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিবাদির সাথে প্রেমের সমপর্ক গড়ে উঠার পর বাদিকে বিয়ে করার কথা বলে
বাদি (রুপা) কে একাধিক বার ধর্ষণের অভিযোগ করেন। বাদীর অভিযোগের ভিত্তিতে সিএমপি কোতোয়ালী থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।
মামলার প্রেক্ষিতে কোতোয়ালী থানার এস আই সজীব কুমার আচার্য সংগীয় ফোর্সসহ গতকাল রাতে নগরীর বন্দর থানাধীন ৩৮ নং ওয়ার্ডের দ: মধ্যম হালিশহর মাইজপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভূয়া আইনজীবী কামরুল ইসলাম হৃদয়কে আটক করেছে পুলিশ।
এজাহারনামীয় আসামি মোঃ কামরুল ইসলাম হৃদয় এর গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের ইউপিতে বলে জানান। বিগত ২০২২ সালেও ভূয়া আইনজীবী, ব্যারিষ্টার ও মফস্বলের এক পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত হয়ে আটক ছিলেন বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন