নিউজ ডেস্ক

পুলিশের গুলিতে যুবদল নেতাদের গুরুতর আহত করার ঘটনায় দীপ্তি ও শাহেদ’র তীব্র নিন্দা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম-৮ আসনে নির্বাচনী সহিংসতায় ৭ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের ৪ নং চান্দগাঁও ওয়ার্ডে পুলিশের গুলিতে আহত থানা ও ওয়ার্ড যুবদল নেতা মোহাম্মদ রাব্বী, শরীফ আহমেদ, শাকিল চৌধুরী, জুয়েল রানা, জিশান উদ্দিন, মোরশেদ, সুমন, জাহেদ ও তুষার সহ পাহাড়তলিতে আরও দুইজন গুরুতর আহত হন। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তি ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ শাহেদ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, জনগণ আওয়ামী লীগের ভোট বর্জনের উচিত জবাব দিয়েছে। এই সরকারকে প্রত্যাখান করে জনগণ ভোট দিতে যায়নি। আজকে বাংলাদেশের মানুষের জন্য আরেকটি কলঙ্কজনক দিন। এই ভুয়া নির্বাচনের মাধ্যমে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক বিশ্ব থেকে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ল।

ক্ষমতাসীনেরা মনে করে, দেশের মানচিত্র জাহান্নামে যাক, অর্থনীতি জাহান্নামে যাক, গণতন্ত্র জাহান্নামে যাক, তাতে তাদের কিছু আসে-যায় না। তবে এই ভুয়া ভোটের মধ্য দিয়ে দেশ অর্থনৈতিক সংকটে পা দিল। এই প্রহসনের নির্বাচনের জন্য বাংলাদেশকে চরম মূল্য দিতে হবে। হরতাল জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে পালন করেছে।

আওয়ামী লীগের মনে রাখা উচিত বাংলার মানুষ পরাজয় মানে না। আমরা শেখ হাসিনার পদত্যাগ না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকব। ইনশাআল্লাহ জনগণের বিজয় সুনিশ্চিত।

মন্তব্য করুন