নিউজ ডেস্ক

সরকার বিরোধীদের জীবন রাষ্ট্রীয় বন্দুকের নলের নিচে বন্দি: মো. শাহজাহান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান বলেছেন, আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কারাগারগুলো বিএনপির নেতাকর্মীদের দ্বারা পরিপূর্ণ করে রেখেছে। অবৈধ দখলদার সরকার তাদের দখলদারিত্ব ধরে রাখার জন্য পুরো দেশকে কারাগারে পরিণত করেছে। বিএনপি নেতাকর্মীরা গ্রেপ্তারের আগে বাইরে যেমন নির্যাতনের শিকার হন, কারাগারেও তারা তেমনি নির্যাতিত হন। সরকার বিরোধীদের জীবন এখন রাষ্ট্রীয় বন্দুকের নলের নিচে বন্দি। চট্টগ্রামের মোহরা ওয়ার্ড বিএনপির সহ সভাপতি গোলাপুর রহমান ঢাকা কাশিমপুর কারাগারে বন্দি অবস্থায় গত ২৫ নভেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। তিনি সুস্থ শরীরে বিএনপির মহাসমাবেশে যোগ দিতে ঢাকায় গিয়েছিলেন। কিন্তু সমাবেশের আগের দিন তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে কারাগারে বন্দী করে রাখে। এই বন্দী অবস্থায় তিনি বিনা চিকিৎসায় মারা যান। তাছাড়া রাউজানে বিএনপি নেতা মো. মুছাকে জুমার নামাজ পড়ে মসজিদ থেকে বের হওয়ার পর আওয়ামী সন্ত্রাসীরা হাজার হাজার মানুষের সামনে পিটিয়ে হত্যা করে। এছাড়া সীতাকুন্ডে আওয়ামী সন্ত্রাসী ইসলাম বাহিনীর সদস্য ডাকাত তৌহিদ বারৈয়াঢালা বিএনপির সহ সভাপতি নুরুল মোস্তফা বজলকে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। এই জুলুমবাজ সরকারের সময়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা কোথাও নিরাপদ নয়।

তিনি শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) বিকালে ঢাকার কাশিমপুর কারাগারে বন্দী অবস্থায় মৃত্যুবরনকারী মোহরা ওয়ার্ড বিএনপির সহ সভাপতি গোলাপুর রহমানের মোহরা চর রাঙ্গামাটিয়ার বাসভবনে পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাতকালে এসব কথা বলেন।

তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের হত্যাকারী আওয়ামী সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে কারাবন্দী নেতাকর্মীদের ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোরালো আহ্বান জানান।

এছাড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে তিনি গত ২৪ ডিসেম্বর সীতাকুন্ডে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মমভাবে হত্যাকান্ডর শিকার বারৈয়াঢালা বিএনপির সহ সভাপতি নুরুল মোস্তফা বজল এবং গত ১৬ ফেব্রুয়ারী রাউজানে জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়ে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত ওমান প্রবাসী বিএনপি নেতা মো. মুছার পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করেন। তিনি তাদের খোজ খবর নেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সি. যুগ্ম আহবায়ক এনামুল হক এনাম, উত্তর জেলা বিএনপির সি. যুগ্ম আহবায়ক এম এ হালিম, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জি. বেলায়েত হোসেন, কাজী সালাউদ্দিন, মহানগর বিএনপির সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য আবু জাফর, চান্দগাঁও থানা বিএনপির সভাপতি মো. আজম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন ভূঁইয়া, সীতাকুন্ড উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব কাজী মহিউদ্দিন, মোহরা ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি জানে আলম জিকু প্রমুখ।

মন্তব্য করুন