নিউজ ডেস্ক

মুক্তিযুদ্ধের সাথে আওয়ামীলীগ বেঈমানী করেছে: কর্নেল ড. অলি আহমদ বীর বিক্রম

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)’র সভাপতি কর্নেল ড. অলি আহমদ বীর বিক্রম (অব:) বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের সাথে আওয়ামীলীগ বেঈমানী করেছে। মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র ছিল গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা করা। যে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার করে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল, আজ এটা সর্বজন স্বীকৃত যে আমরা গণতন্ত্র সম্পূর্ণভাবে হারিয়েছি। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, ব্যক্তিস্বাধীনতা, বাকস্বাধীনতা ও সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা আমরা হারিয়েছি। পাকিস্তানী শোষণ জুলুম ও অত্যাচার থেকে মুক্ত হয়ে সাম্য, মানবিক মর্যাদা এবং সামাজিক সুবিচারের ভিত্তিতে একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন নিয়ে যে স্বাধীনতা যুদ্ধ ও বিজয় অর্জিত হয়েছিল আওয়ামীলীগ তার সকল অর্জনকে ধ্বংস করেছে। দেশে জনগণের নির্বাচিত সরকার না থাকলে জনগণের খোঁজ খবর নেবে কে? সকলে নিজের নিজের ধান্দায় ব্যস্ত। বর্তমান সরকার সমগ্র দেশকে অরাজকতা, অপশাসন এবং দুর্নীতির দিকে ঠেলে দিয়েছে, সর্বত্র হাহাকার। সরকারের অযোগ্যতা, অক্ষমতা ও অব্যবস্থাপনার কারণে জনগণ মানবেতর জীবনযাপন করছে। নিত্যপণ্যের মূল্য হুহু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষের আয়ের সাথে ব্যয়ের সামঞ্জস্য নেই। আমাদের সবচেয়ে বড় সঙ্কট হচ্ছে গণতন্ত্রের সঙ্কট। গণতন্ত্র না থাকলে গণমাধ্যমের যে স্বাধীনতা থাকে না তা আমরা হাঁড়ে হাঁড়ে টের পাচ্ছি।

তিনি আজ ৩১ মার্চ (রবিবার) শাহ্ আমানত সেতু সংযোগ সড়কস্থ ওয়েডিং পার্ক কমিউনিটি হলে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলার ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মনে রাখতে হবে যে, বেঈমান কখনও অনুতপ্ত হয় না, স্বার্থপর কখনও কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে না; আর সুবিধাবাদী কখনও কারো আপন হয় না। দুর্নীতিবাজ কখনও মুসলমান হবে না, দেশপ্রেম না থাকলে সে কখনও ঈমানদার হবে না। ঈমানদার না হলে সে কখনও সমাজের উপকারে আসবে না। এদেশে শতকরা নব্বই ভাগ মুসলমান। যারা ইসলাম ধর্মে বিশ্বাস করে তারা মৌলবাদী, আমরা যারা মুসলমান আমরা সবাই মৌলবাদী। আর যারা ধর্মে বিশ্বাস করে না তারা উগ্রবাদী।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা এলডিপি সভাপতি এডভোকেট কপিল উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ইফতার ও আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক এমপি নূরুল আলম তালুকদার, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ¦ আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম মহানগর এলডিপি আহবায়ক সৈয়দ গিয়াস উদ্দিন আলম, চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর নজরুল ইসলাম, দক্ষিণ জেলা এলডিপি সহসভাপতি আবদুস সবুর চেয়ারম্যান, উত্তর জেলা সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হারুন, উত্তর জেলা সিনিয়র সহসভাপতি ফজল কাদের তালুকদার, আকতারুল আলম, দোস্ত মোহাম্মদ, মনছুর আলম, আনিছুর রহমান, জামায়াত নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ, অধ্যক্ষ শামসুজ্জামান হেলালী, বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন লিপু সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 

মন্তব্য করুন