নিউজ ডেস্ক

দেশে হীরক রাজার শাসন চলছে: আবু সুফিয়ান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান বলেছেন, আজ বাংলাদেশের মানুষ কঠিন সময় পার করছে। জবাবদিহিতা বিহীন অগণতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদী সরকার দেশকে হীরক রাজার যুগে ফেরত নিয়ে গেছে। একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় সরকার রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে জনগণের টুঁটি চেপে ধরেছে। ফলে জনগণ সরকারের দুঃশাসন, লুটপাট ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কোন কথা বলতে পারছেনা। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, অর্থনৈতিক সঙ্কট, সরকারের সীমাহীন দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার ফলে বিপর্যস্থ বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত। আজ জনগণ তার নায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। তাদের ভোটের অধিকার, বাকস্বাধীনতা, মৌলিক অধিকার সহ সকল অধিকার হরণ করা হয়েছে। দ্রব্যমূল্যের লাগাতার উর্ধ্বগতি, সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য এবং সরকারের প্রতারণাপূর্ণ ভূমিকার কারণে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। পবিত্র এ রমজানেও তারা মানুষের সাথে প্রতারণা করছে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ঊর্ধ্বমুখী দামে মানুষ আজ দিশেহারা। ন্যার্যমূল্যের দোকানগুলোর লাইনের সারি দেখলে বুঝা যায় মানুষ কিভাবে দিনাতিপাত করছে। চারিদিক থেকে সাধারণ মানুষের বোবা আর্তনাত ছাড়া আর কিছুই শুনা যায়না। তাই কর্তৃত্ববাদী সরকারের কবল থেকে দেশ ও জনগণকে মুক্ত করতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে চলমান আন্দোলনকে আরোও বেগবান করতে হবে।

তিনি আরোও বলেন, গণতন্ত্র পুন:রুদ্ধার করতে গিয়ে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ জীবনমৃত্যুর সন্ধি:ক্ষণে। আমাদের নেতা তারেক রহমান আজ নির্বাসনে। লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মী আজ মামলায় জর্জরিত। নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এখনো হামলা-মামলা অব্যাহত আছে। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় কোন অপশক্তির কাছে কোন নেতাকর্মী মাথা নত করেনি। বরঞ্চ সকল সুখ বিসর্জন দিয়ে জীবনবাজি রেখে তারা এই ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে। হামলা-মামলা, গ্রেফতার-নির্যাতন সইতে সইতে তারা আজ খাঁটি সোনায় পরিণত হয়েছে। অধিকারহারা বঞ্চিত মানুষকে তাদের অধিকার ফিরিয়ে দিতে নেতাকর্মীদের আরোও ত্যাগ স্বীকার করতে হবে।

আজ ০১ এপ্রিল (সোমবার) বোয়ালখালী উপজেলা ও পৌরসভা বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে কারামুক্ত নেতাকর্মীদের সম্মাননা অনুষ্ঠান ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বোয়ালখালী উপজেলা বিএনপির সভাপতি হাজী ইসহাক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক নুরন্নবী চৌধুরী, সদস্য সচিব হামিদুল হক মান্নান, চান্দগাঁও থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব গিয়াস উদ্দিন ভুইয়া,জেলা বিএনপির সদস্য মিশকাতুল আলম চৌধুরী পাপ্পা। পৌরসভা বিএনপির আহবায়ক শহীদুল্লাহ চৌধুরী, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মেহেদী হাসান সুজন এর সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ডা: মহসিন খান তরুণ, আক্কাস মেম্বার, ইঞ্জিনিয়ার তারেক,আবু ছিদ্দিক,এম.কপিল উদ্দিন, মহানগর যুবদল নেতা আরিফুল ইসলাম,বিএনপি নেতা রেজাউল করিম মুন্সি, আবুল বশর,কফিল উদ্দিন, মো. সাইফুদ্দিন,শওকত হোসেন, জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মো. ইসমাইল চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক সাইম উদ্দিন টিটু,মহসিন খোকন ,আজগর মেম্বার, নজরুল ইসলাম ,আলি আকবর ,কারামুক্ত নেতা গোলাম হোসেন নান্নু, কাজী কামাল, মীর ইলিয়াস, শ্রমিক দলের সাবেক সভাপতি মো: সেলিম, আহবায়ক আকরাম হোসেন দুলাল, সদস্য সচিব আবদুস সাত্তার, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রবিউল হোসেন রবি, সাধারণ সম্পাদক কামরুদ্দিন সবুজ,জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা শহীদুল্লাহ চৌধুরী মানিক, নুর হোসেন, মতিউর রহমান রাসেল, ছাত্রদল নেতা মো. আরমান হোসেন, জিকু, রায়হান, প্রমুখ।

মন্তব্য করুন