নিউজ ডেস্ক

রাষ্ট্রযন্ত্র দিয়ে জনগণকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে সরকার: আবুল হাশেম বক্কর

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেছেন, দেশের ক্ষমতা দখলের প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বিএনপির বলিষ্ঠ নেতাকর্মীদের টার্গেট করে হত্যা করেছিল আওয়ামীলীগ। বিএনপির গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী সন্ত্রাসীরা নির্বিচারে নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছিল। তার অন্যতম শিকার হচ্ছে চট্টগ্রাম কোষ্টার হাউসের সাধারণ সম্পাদক ও মাঝির ঘাট এলাকার বিএনপি নেতা জানে আলম জুনু। তিনি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে শহীদ হয়েছেন। তাকে আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসীরা হত্যা করেছে। এই অবৈধ সরকার তাদের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য অসংখ্য গণতন্ত্রকামী মানুষকে হত্যা করেছে। তারপরও জনগণ রাজপথ ছাড়েনি। রাষ্ট্রযন্ত্র দিয়ে সরকার জনগণকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। সারাদেশকে সরকার বদ্ধ কারাগারে পরিণত করেছে।

তিনি মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুপুরে পূর্ব মাদারবাড়ী এলাকায় ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের সময় আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত বিএনপি নেতা জানে আলম জুনুর পরিবারের মাঝে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঈদ উপহার প্রদানকালে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীদের হামলায় বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মী শহীদ হয়েছেন। তারা বীরের মতো শহীদ হয়েছেন। তারা দেশের জন্য যে আত্মত্যাগ করে গেছেন, তা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।তারেক রহমান হতাহত ও নির্যাতিতদের পাশে দাঁড়াতে নির্দেশ দিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে আমাদের নেতাকর্মীরা আরও ত্যাগ শিকারের জন্য শপথ গ্রহণ করেছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদরঘাট থানা বিএনপির সভাপতি হাজী মো. সালাউদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাউসার হোসেন বাবু, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য সাইফুর রহমান চৌধুরী শপথ, ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল হোসেন, বিএনপি নেতা মো. শাহাজাহান, থানা যুবদলের সি. যুগ্ম আহ্বায়ক নুর খান, সদস্য সচিব মো. রাশেদ, মহানগর যুবদলের সহ সম্পাদক নুর জাহেদ বাবলু, থানা ছাত্রদলের আহ্বায়ক ইউনুস মিয়া জুয়েল, ছাত্রদল নেতা সোহেল রানা প্রমুখ।

মন্তব্য করুন