নিউজ ডেস্ক

থানচিতে অবাধে চলছে বালু উত্তোলন

বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবানের থানচির সাঙ্গুর চর থেকে অবাধে চলছে বালু উত্তোলন। স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা থেকে শুরু করে স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও ঠিকাদার সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে নেমেছে বালু তোলার প্রতিযোগিতায়।

খোজ নিয়ে জানা গেছে, থানচির বলিপাড়ার কানাজিও পাড়া, ঙাইক্ষ্যং পাড়া, মংনাই পাড়ায় মেম্বার উচনু, বলিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান জিয়া অং ও ঠিকাদার আনোয়ার, বলিপাড়ার নাইন্দারী পাড়ায় স্বেচ্ছা সেবক লীগের সভাপতি বাসিংঅং মারমা, আমতলী পাড়ায় অনিল যুব লীগের সভাপতি অনিল ত্রিপুরা, সম্পাদক চহাই মারমা, মালিরাম ত্রিপুরা ও ঠিকাদার সুজনসহ কয়েকজন এ বালু উত্তোলনে জড়িত। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতে দীর্ঘদিন ধরে প্রতিরাতে তারা ট্রাকযোগে বিভিন্ন স্থানে এবালু পাঁচার করে আসছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

এদিকে শুক্রবার রাত ১১ টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অবৈধভাবে সাঙ্গু নদী থেকে বালু উত্তোলন করে পাঁচারের সময় থানচি যুব লীগের সভাপতি অনিল ত্রিপুরা ও সম্পাদক চহাইনু মারমার একটি বালু ভর্তি ট্রাক জব্দ করেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। এসময় ট্রাক চালক ও সহকারীকে আটক করলেও পরে শুধু ট্রাকটি জব্দ করে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

স্থানীয়দের মতে, থানচি সদর ইউনিয়নের আমতলী পাড়ার মংচসিং কারবারী ও মরহুম মুক্তিযোদ্ধা উহ্লাচিং মারমার খামার ঘাট থেকে নদীর বালু ক্রয় করে গত তিন মাস ধরে ড্রেজার মেশিন দিয়ে থানচি যুব লীগের সভাপতি অনিল ত্রিপুরা ও সম্পাদক চহাইনু মারমা প্রায় কয়েক লক্ষ ঘনফুট বালু ইতিমধ্যে উত্তোলন করেছেন এবং প্রতিরাতে তা পাঁচার করছেন।
এদিকে একাধিক বালু উত্তোলনকারীরা জানান, এ বালু ঠিকাদার আনোয়ার চকরিয়ার ভাউচার ব্যবহার করে সেনাবাহিনীর বাকলাই সড়কের উন্নয়ণ কাজের জন্য নিয়ে যাচ্ছে। তারা আরো জানায়, আনোয়ার চকরিয়া থেকে যে বালু আনে তার সাথে এ বালু মিশিয়ে নিয়ে নিয়ে যায়। তাদের দাবি এমন কাজ করে আনোয়ার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথেও প্রতারণা করছে।

বালুর ট্রাক জব্দের বিষয়ে সম্পাদক চহাইনু মারমা জানান, এলাকার কিছু অসহায় ছেলে আছে তাদের আমরা সহযোগিতা করছি। আমরা নিজেরা কোন বালু উত্তোলন করছিনা।

থানচি যুব লীগের সভাপতি অনিল ত্রিপুরা বলেন, থানচির সবাই খুবই কস্টে আছে। তাই নিজেদের (সরকার দলের) ছেলেদের সহযোগিতা করছি। তিনি বলেন, স্থানীয় বালু উত্তোলন না করলে এখানে সরকারী উন্নয়ণ কিভাবে হবে?

থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মামুন বলেন, রাতে অবৈধভাবে পাঁচারের সময় বালু ভর্তি ট্রাক জব্দ করা হয়েছে। এসময় দুজন আটক করা হলেও তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। জব্দ ট্রাক ও বালু পাঁচারকারীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এ বিষয়ে বান্দরবান পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ফখর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, থানচির বালু উত্তোলনের ব্যাপারে আমার জানা নাই। আমি অবশ্যই তদন্ত করে ব্যবস্থা নিব।

মন্তব্য করুন