নিউজ ডেস্ক

জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচিতদের অভিনন্দন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির নির্বাচন শনিবার দিনব্যাপী উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. সাদি উর রহিম জাদিদ। বিকালে ভোটগ্রহণ শেষে সন্ধ্যায় ফল ঘোষণা করেন তিনি।

চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির ৯ জনের কমিটি। জেলা প্রশাসক পদাধিকার বলে কমিটির সভাপতি। একজন সাধারণ সম্পাদক, ২ জন সহ-সভাপতি, ২ জন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ৩ জন কার্যকারী সদস্য সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন নাট্যজন ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির প্রথম নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু। তিনি পেয়েছেন ৩৩৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সংগীতশিল্পী ও আবৃত্তিশিল্পী মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম (হাসান জাহাঙ্গীর) পেয়েছেন ২২৩ ভোট।

নির্বাচনে ২ জন সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল কুমার চৌধুরী ও এস কে এস মাহমুদ (অলোক মাহমুদ)। অঞ্চল পেয়েছেন ২৫৭ ভোট এবং মাহমুদ পেয়েছেন ২৪৯ ভোট। তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী অপর দুই প্রার্থী তাপস শেখর পেয়েছেন ২৪৩ ভোট এবং নজরুল সংগীতশিল্পী দীপেন কান্তি চৌধুরী পেয়েছেন ২০৭ ভোট।

যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ২ জন। তারা হলেন সংগীতশিল্পী আলাউদ্দিন তাহের ও আবৃত্তিশিল্পী কঙ্কন দাশ। আলাউদ্দিন পেয়েছেন ২৭৮ ভোট, কঙ্কন পেয়েছেন ২৫৭ ভোট। তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী মো. শহিদুল করিম চৌধুরী নিন্টু পেয়েছেন ১৭৬ ভোট, মুহাম্মদ সাজ্জাত হোসেন পেয়েছেন ১২৭ ভোট, কমল দাশ পেয়েছেন ১০২ ভোট এবং মো. জামশেদ উদ্দীন পেয়েছেন ৩১ ভোট।

কার্যকরী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন ৩ জন। তারা হলেন বাপ্পা চৌধুরী (২২৭ ভোট), বিশ্বজিত পাল (২১৭ ভোট) ও রহিমা খাতুন লুনা (১৯৫ ভোট)। সদস্য পদে আর যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হয়েছেন তারা হলেন মো. সেলিম রেজা সাগর (১৮৬ ভোট), মোহাম্মদ আলী (আলী প্রয়াস, ১৬৪ ভোট), রুবেল দাশ প্রিন্স (১৬০ ভোট), সামশুল হায়দার তুষার (১০০ ভোট), মো. আকরাম হোসেন (বাপ্পী আলমগীর ৭৪ ভোট), মো. হানিফ খন্দকার (৫৫ ভোট) এবং আশিকুর রহমান (৪৩ ভোট)।

জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়া নবনির্বাচিতদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান, জাতীয় সাংস্কৃতিক মঞ্চের সভাপতি কামরুল হুদা ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, কবিতা মঞ্চের সভাপতি কবি এম এ হাশেম আকাশ ও সাধারণ সম্পাদক কবি সুলতান আহমেদ কমল, বাংলাদেশ টেলিভিশন, বেতারের সুরকার ও গীতিকার দিলীপ ভারতী, রাজনীতিবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব দীপক কুমার পালিত, নাট্যকার রতন চত্রবর্ত্তী, রাজনীতিক মিথুল দাশগুপ্ত, বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম সাদা, আবৃত্তিকার সুমন দত্ত, কবি রোকন উদ্দীন আহমেদ, কবি সঞ্জয় কুমার দাশ, শিল্পী সৈয়দ হোসেন শাহ,  সংগীতি শিল্পী শিমলী দাশ, শিল্পী সুধমা দাশ সুজন, আবৃত্তিকার ও কবি সোমা মুৎসুর্দ্দী, সংগীত শিল্পী মৌ: চৌধুরী, সংগীত শিল্পী বেবী মজুমদার নুপুর, শিল্পী রুপনা দাশ, সংগীত শিল্পী শ্রাবন্তী শুকলা, সংগীত শিল্পী এস. কে মানিক, দপ্তর সম্পাদক আয়মান ওসমান, বিপ্লব দাশগুপ্ত, সুকুমার দে, সংগীত শিল্পী চন্দনা চক্রবর্তী, পাপড়ী বৈরগী, গাজী মাজাহারুল ইসলাম, মেহেদী হাসান জীম, রোকেয়া বেগম, নারী উদ্যোক্তা সুপর্ণ মুৎসুদ্দি শুক্লা, নারায়ন দাশ, সংগীত শিল্পী জুয়েল দ্বীপ, কবি ইমরান সোহেল, এডভোকেট অসমিত চক্রবর্ত্তী অমিত, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, কবি তানিয়া সুলতানা, কবি শেখ ফারুক, কানু কুমার দে, জয় দত্ত, আরিফ, রুপনা দাশ, মোবারক হোসেন ভূঁইয়া, নরেশ দাশ, ডা: মুজিবুর রহমান, মোহাম্মদ চৌধুরী, উমা আচার্য্য, উর্মি বড়ুয়া, কৃত্তিকা চক্রবর্তী, বেলায়েত হোসেন, ফরিদুল আলম মিল্লাত, নূর মোহাম্মদ চৌধুরী সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, তাদের বলিষ্ট নেতৃত্বে চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমী অনেক দূর এগিয়ে যাবে। নেতৃবৃন্দ তাদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, এবারের নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ছিল ৬২৪ জন। একাডেমির প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৮ সালের ২১ জুলাই।

মন্তব্য করুন